বার্মিংহামের চিঠি

শহিদুল আলম

আফসোস লাগে আমার

কী বলব আর ?

আমরা যারা হুইলচেয়ারে চলি

তাদের জন্যে নেই কোন রোড,

নেই  ট্রান্সপোর্ট

দুঃখের কথা কী বলি ।

 

ওদেশেই স্বাভাবিক এমন অবস্থা

ওখানকার সিস্টেমের ওপর কারো

নেই আশা, নেই আস্থা ।

হয়ত একদিন হবে ভোর ।

আমরা না হই, প্রজন্ম পর

দেখবে সবই আশার, হবে বিভোর ।

 

অথচ দ্যাখো ।

এখানটায় সুবিধা কত !

হুইলচেয়ার চলতে কোন অসুবিধা হয় নাকো ।

ঢালু করে দেয়া আছে বাধা যত ।

 

রাস্তায় বেরুলেই আছে সুন্দর ফুটপাত ।

আরও আছে বিশালকায় ব্ল্যাক ট্যাক্সিক্যাব ।

তারপর আছে মেট্রোরেল চমৎকার

কোথাও যেতে অসুবিধা হয় না আমার

বাসে আছে সুন্দর র‌্যাম্প সিস্টেম

লোকজনও কী অমায়িক, লাইক ফ্রেন্ড ।

 

একা বাঁচতে চায় না কেউ এদেশে সুখে

সবার পাশে দাঁড়ায় সবাই বিপদে ও শোকে

প্রত্যেকে বাঁচে পরের তরে

কেউ থাকে না অনাদরে ।