কষ্ট

33

 

আঁখিনুর খানম (জ্যোতি)

 

কষ্টগুলো আছড়ে পরে বুকের মাঝে।

রক্তনালী জুড়ে ছিন্ন

করে দিতে চায় হিংস্রতার খুন পিয়াসের।

ছুড়ে বন্ধ করে দিতে চায় জীবন প্রদীপ

আশা যেন মুছে দিয়ে যায়

জীবনের সকল ভালবাসা।

অশ্রুগঙ্গায় সিক্ত হয়ে শান্তি পায়নি

হৃদয় আশার ভাঙন।

সহ্য করতে তাই আরও কিছু অশ্র“র।

লাগবে সঞ্চয় রাতের আঁধার

পড়ে রবে সাথে কষ্টের দিন।

স্বপ্নগুলো মরীচিকায় মিলিয়ে

কেন হয় বিলীন ?

কষ্টগুলো বাঘের থাবার মতন

আছড়ে কেন পড়ে?

শান্তি নামের সুখ পাখিটা

কেন ব্যথা আঘাতে ঝরে ?

কেন নেতিয়ে যায় জীবনের

মধুর স্মৃতিগুলো? জীবন কেন

হয়ে উঠে হতাশার ধুলো?

রাতের বেলার শান্তি নীড়,

কষ্টগুলো করে শুধু ভিড়

আবছা অন্ধকারের রাত

জাগা ছায়া মনের মধ্যে উঁকি শুধু

জগতের।

মায়া অবলীলায় ভাবনা আসে কতো কিছু

মনে শুধু আশাটাকে বাঁচাতে চায়

মনে প্রাণে।

চোখ দুটি যেন উদাস এক বজ্র

কষ্ঠী মন যেন বিষের জ্বালায় তিক্ত।

জীবনটা যেন কষ্টের

এক বদ্ধ চিলে কোঠা………..