বাড়ি15th Issue, june 2016চৈত্রসংক্রান্তিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা

চৈত্রসংক্রান্তিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা

অপরাজেয় ডেস্ক

 

বাংলা ১৪২২ সনের চৈত্রসংক্রান্তির সাংস্কৃতিক উৎসবের উদ্বোধনী আয়োজনের সম্মানিত অতিথিগণ একেকজন হয়ে উঠেছিলেন শিল্পী ও আবৃত্তিকার। বক্তব্যের পাশাপাশি তাঁরা গান ও আবৃত্তিতে মাতালেন পিএনএসপি চত্বর।

 

 

দেশে প্রথমবারের মতো ভিন্নধর্মী এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছিল প্রতিবন্ধী ব্যক্তি সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব পার্সনস উইথ সেরিব্রাল পালসি (এপিসিপি), সোসাইটি ফর ইউনিক কেপাবল সিটিজেনস (এসইউসিসি) ও জাতীয় ডিপিও নেটওয়ার্ক প্রতিবন্ধী নাগরিক সংগঠনের পরিষদ (পিএনএসপি)।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কবি কাজী রোজী এমপি (সংরক্ষিত আসন) তাঁর বক্তব্যে প্রতিবন্ধী মানুষের জন্য বাজেট বৃদ্ধির চেষ্টা চলছে বলে জানান। প্রতিবন্ধী শিল্পীদের সাংস্কৃতিক চর্চার ক্ষেত্রে সরকারি ও বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা বৃদ্ধির জন্য সবাইকে আহ্বান জানান। বক্তব্য দেওয়ার একপর্যায়ে তিনি হারমোনিয়াম টেনে গান গেয়ে ওঠেন।

 

প্রতিবন্ধী মানুষের উদ্যোগে চৈত্রসংক্রান্তি উৎসবে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখাকালীন এক পর্যায়ে হারমোনিয়াম টেনে গান গেয়ে উঠলেন ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জনাব আলী আহসান

 

বিশেষ অতিথি ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জনাব আলী আহসান তাঁর বক্তব্যে নিজের অভিজ্ঞতা থেকে প্রতিবন্ধী মানুষদের নিজের কথা নিজেদের বলার অধিকার প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দেন। সে জন্য তিনি প্রতিবন্ধী মানুষদের সংগঠিত হয়ে জোরালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। প্রতিবন্ধী শিল্পীদের সঙ্গীতকে সাধনা হিসেবে নিয়ে সঙ্গীতের বিভিন্ন ধারায় দক্ষতা বৃদ্ধি করে তাদের জীবিকা অর্জনের পথকে প্রশস্ত করার পরামর্শ দেন তিনি। বক্তব্য শেষে বৈশাখকে স্বাগত জানিয়ে স্বরচিত একটি কবিতা আবৃত্তি করা হয়। তারপর যেন আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না, উঠে এসে হারমোনিয়াম টেনে শুরু করলেন নজরুলগীতি। এরপর একে একে পুঁথি গান, পালা গান, ক্লাসিক্যাল ঘরানার গানে দর্শকদের মুগ্ধ করলেন।

 

 

বিশেষ অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান রূপা চক্রবর্তী প্রতিবন্ধী মানুষের নেওয়া অনন্য এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে তাদের সাংস্কৃতিক এই চর্চা অব্যাহত রাখতে বলেন। এ ছাড়া তিনি বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক বীরাঙ্গনা নারীর আত্মদানের কথা উল্লেখ করে বলেন, দেশের জন্য তাঁরা যেমন ত্যাগ স্বীকার করতে পারেন, তেমনি দেশ গঠনেও তাঁরা জোরালো অবদান রাখতে পারেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

স্বাগত বক্তব্যে পিএনএসপির পরিচালক রফিক জামান বলেন, পিএনএসপি বাঙালির চিরায়ত কৃষ্টি চর্চায় সব সময় প্রতিবন্ধী মানুষদের উৎসাহিত করতে তাদের এ ধরনের উদ্যোগের পাশে থাকবে। পরবর্তীকালে আরও বড় পরিসরে এ ধরনের আয়োজন করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

 

টার্নিং পয়েন্ট ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক জীবন উইলিয়াম গোমেজ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। তাদের মস্তিষ্ক পক্ষাঘাত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংগঠন এপিসিপি এ ধরনের আয়োজনে যুক্ত হয়েছে বলে গর্ব বোধ করছেন জানিয়ে ভবিষ্যতেও এ ধরনের উদ্যোগে পাশে থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, অনুষ্ঠান সহযোগিতায় ছিল টার্নিং পয়েন্ট ফাউন্ডেশন, বি-স্ক্যান এবং মেঠোপথ।

 

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এসইউসিসির সহসভাপতি ইফতেখার মাহমুদ এবং একই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শাহাবুদ্দিন আহমেদ দোলন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন ১৫ জন প্রতিবন্ধী শিল্পী।

সর্বশেষ

বিশেষায়িত বিদ্যালয়ে শিক্ষা উপকরণ সংকট; নানামুখী সমস্যায় প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা

অপরাজেয় প্রতিবেদক পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা, সঠিক রঙের ব্যবহার, সহায়ক উপকরণ, ইন্ডিকেটর বা সঠিক দিকনির্দেশনা এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণে সহায়ক সফটওয়্যার ও অডিও বইয়ের অভাবসহ নানামুখী সমস্যার কারণে সাধারণ...

মাসিক আর্কাইভ

Translate | অনুবাদ